• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানকে ৩ বছরের সশ্রম কারাদন্ড                    দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে রাঙামাটিতে ছাত্রলীগের ৪ নেতার পদ স্থগিত                    আলুটিলায় পর্যটক আর নিসর্গপ্রেমীদের মন জুড়াচ্ছে খ্রাসাং রিসোর্ট                    জুরাছড়িতে জেলা পরিষদের শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ                    "শিওর ক্যাশ" এ্যাপ এর মাধ্যমে টাকা জমা দানে জেলা পরিষদ ও রূপালী ব্যাংকের মধ্যে স্বাক্ষর                    বরকলে বিভিন্ন পাড়া কেন্দ্রে খেজুর বিতরণ                    রাঙামাটিতে স্কুল ফিডিং এর প্রোগ্রামের অংশ হিসেবে শিশুদের মাঝে খেজুর বিতরণ                    লামায় পরকীয়ার জেরে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা,আহত ২                    মহালছড়ি কলেজ প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মৈত্রী প্রসাদ খীসা’র অবসর জনিত বিদায় সংবর্ধনা                    পার্বত্য এলাকার মেধাবী শিক্ষিত যুব সমাজকে গড়ে তুলতে হবে-দীপংকর তালুকদার এমপি                    রাঙামাটিতে শীতার্তদের মাঝে জেলা পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ                    পার্বত্যাঞ্চলের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীদের উন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে-বৃষ কেতু চাকমা।                    বিলাইছড়িতে জেলা পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ                    চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে দিনব্যাপী ছবি ও চিত্র প্রদর্শনী                    বরকলে কাপ্তাই হ্রদে নিখোজের সাড়ে তিন ঘন্টার রিমেশের মৃত দেহ উদ্ধার                    বরকলে কাপ্তাই হ্রদের পানিতে ডুবে এক যুবক নিখোঁজ                    দায়িত্বের দায়বোধ থেকে দেশ-সমাজের পাশে দাঁড়াতে পিছপা হবো না                    রাঙামাটিতে পাবলিক লাইব্রেরী ক্যাম্পেইন সমাপনী                    পাহাড়ের সমস্যা চুক্তি বাস্তবায়নের মাধ্যমে সমাধান সম্ভব-উষাতন তালুকদার                    বিলাইছড়িতেপরিচ্ছন্নতা ও পুষ্টি বিষয়ক সচেতনতামূলক লোকসঙ্গীত ও নাটিকা পরিবেশনা                    বরকল মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদায় সংবর্ধনা ও নবীন বরণ                    
 

লামায় মেয়ে হত্যার বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ৮৫ বছরের এক বৃদ্ধ মায়ের

এস.কে খগেশপ্রতি চন্দ্র খোকন, লামা : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 14 Dec 2019   Saturday

বান্দরবানের লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের  সাজু আক্তার হত্যার ঘটনার বিচারের দাবী এবং বাদী ও স্বাক্ষীকে প্রধান আসামী কর্তৃক হুমকি দেওয়ার প্রতিবাদে সাংবাদ সম্মেলন করেছে নিহত সাজু আক্তারের পরিবার।

 

গেল ১৫ ডিসেম্বর ২০০৮ সালের সাজু আক্তার হত্যা মামলার আসামী জয়নাল আবেদীন ভেট্টু ও ভাই আরফাতুল ইসলাম এবং তাদের পিতা আব্দুল জাব্বার সহ পরিবারের সদস্যদের দ্বারা মামলার বাদী এবং স্বাক্ষীদের নির্যাতন, হয়রানী ও হুমকি দওয়ায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করে পরিবারটি। 

 

শনিবার বেলা ১১টায় লামা রিপোর্টার্স ক্লাব হলরুমে এই সাংবাদ সম্মেলন করে।

 

সাংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, নিহত সাজু আক্তারের বড় ভাই ও উক্ত খুনের মামলার বাদী মোস্তাফিজুর রহমান। এ সময় সাজু আক্তারের বৃদ্ধ মা আসমা খাতুন (৮৫) ভাই মো. আবুল কাসেম উপস্থিত ছিলেন। খুনের শিকার সাজু আক্তার (২৫) লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা ইউনিয়নের পহর চাঁদা গ্রামের মৃত গোলাম ছোবহানের মেয়ে।


লিখিত বক্তব্যে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আজ আমরা বিশেষ পরিস্থিতির শিকার হয়ে এই সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের ও আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। গেল ১৫ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে সরই ইউনিয়নে জয়নাল আবেদীন প্রকাশ ভেট্টুর তরমুজ খেতে আমার ছোট বোন সাজু আক্তার (২৫) কে অত্যন্ত নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। খুনি চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার পুটিবিলা ইউনিয়নের গৌড়স্থান সিকদার পাড়ার আব্দুল জব্বার এর ছেলে জয়নাল আবেদীন ভেট্টু। ভেট্টু তার প্রতিপক্ষ লোকজনকে ফাঁসানোর জন্য নিজ হাতে এই হত্যাকান্ড সংঘটিত করেন। এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সহ অন্যান্য স্বাক্ষীদের স্বাক্ষীর ভিত্তিতে পুলিশ আদালতে চার্জশিট দিয়েছে। মামলাটি বর্তমানে স্বাক্ষীর পর্যায়ে রয়েছে। যার মামলা নং- দায়রা ৮১/১০, জি.আর- ৮৭/০৮।


বর্তমানে যখন এই হত্যা মামলাটি স্বাক্ষীর পর্যায়ে রয়েছে ঠিক সেই মুহুর্তে অত্র মামলার আসামী জয়নাল আবেদীন ভেট্টু বাঁচার জন্য তার ভাই আরফাতুল ইসলাম, তার পিতা আব্দুল জব্বার সহ পরিবারের সদস্যগণ নামামুখী ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। আমাকে সন্ত্রাসী লেলিয়ে দিয়ে একাধিকবার আক্রমণ করা হয়েছে। এদিকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য তাকে বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন অব্যাহত রেখেছে। খুনি ও তার পরিবারের লোকজন আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে তার মেরুদন্ড ভেঙ্গে দিয়েছে। এই মামলার প্রত্যক্ষদর্শী মো. ওসমান গনিকে স্বাক্ষী না দেওয়ার জন্য শারীরিকভাবে লাঞ্ছনাসহ হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হচ্ছে। এই বিষয়ে লোহাগাড়া থানায় সাধারণ ডায়েরী ৮৫, তাং- ০২/০৮/১৭ লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।


মামলাটি যখন স্বাক্ষ্য গ্রহণের শেষ পর্যায়ে ঠিক এই মুহুর্তে জয়নাল আবেদীন ভেট্টুর পরিবারের সদস্যগণ উম্মাদ হয়ে গেছে। তারা মামলার স্বাক্ষী এবং মামলার সহযোগিতাকারীদের উপর একের পর এক হামলা ও মামলা দিয়ে হয়রানী করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে অনেক মিথ্যা মামলা দিয়ে মামলার স্বাক্ষীদেরকে হয়রানী করা হয়েছে। সাজু হত্যা মামলার সঠিক বিচারের জন্য সর্বমহলের সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন। সাজু হত্যাকান্ডটি সংঘটিত হওয়ার পর স্থানীয় একটি মহল এই হত্যাকান্ডটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য যথেষ্ট চেষ্টা করেছিল। উক্ত রাজনৈতিক মহল বর্তমানেও সক্রিয় রয়েছে। ইতিমধ্যে মামলার বাদীকে ৩ লক্ষ টাকা গ্রহণ করে মামলাটি আপোষ দেওয়ার জন্য প্রস্তাব দিয়েছে এই রাজনৈতিক দুষ্কৃতকারীগণ।

 

উল্লেখ্য যে, যে দিন সাজু আক্তারকে হত্যা করা হয় সে দিন সরই এলাকার জনৈক রাজনৈতিক নেতা তার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করার জন্য আমাকে প্রস্তাব দেন।


এরমধ্যে গেল ২৩জুলাই ২০১৯ তারিখ একই ইউনিয়নের আলমগীর সিকদারহত্যা মামলার ২নং আসামী জয়নাল আবেদীন ভেট্টু বর্তমানে আন্ডার গ্রাউন্ডে থেকে তার ছোট ভাই আরফাতুল ইসলামকে দিয়ে সকল হামলা মামলার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। আরফাতুল ইসলাম শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী, এই মানবিক আবেদন সৃষ্টি করে মূলত সাজু হত্যা মামলার মূল ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করার হীন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা আব্দুল জাব্বার পরিবারের ষড়যন্ত্রের নেতৃত্বদানকারী আরফাতুল ইসলাম ও আব্দুল জাব্বারের সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, সরকারি সকল মহল, সুশীল সমাজ এবং সর্বসাধারণকে সজাগ থাকার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।


সাজুর বৃদ্ধ মা আসমা খাতুন বলেন, আমরা সাজু আক্তারের পরিবারের সদস্যগণ অত্যন্ত গরীব ও দিনমজুর। জয়নাল আবেদীন ভেট্টু পরিবারের সদস্যদের হামলা ও মামলার কারণে আমরা বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। প্রশাসনের কাছে আমরা নিরাপত্তার দাবী জানাচ্ছি। বৃদ্ধ মা হিসাবে আমার মেয়ে খুনের ন্যায় বিচার দেখে আমি দেখে যেতে চাই।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

আর্কাইভ