• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
পানছড়িতে চাকমা ভাষা কোর্সের সার্টিফিকেট বিতরণ                    অবৈধ অস্ত্রধারীরা সরকারের উন্নয়ন কাজে বাঁধা দিচ্ছে,জনগণকে প্রতিহতের আহ্বান                    দেড়যুগ পরও এমপিও হয়নি ঘাগড়া কলেজটি,মানবেতর জীবনযাপন করছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা                    খাগড়াছড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে ব্যবসায়ী আহত                    ব্লাস্ট রাঙামাটি ইউনিটের উপকারভোগীদের সাথে পর্যালোচনা সভা                    বিলাইছড়ির মেরাংছড়া বিদ্যালয়ে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ                    কাপ্তাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে র‍্যালি, আলোচনা সভা ও পোনা অবমুক্তকরন                    রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে রাঙামাটিতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি, পোনা অবমুক্তকরণ ও আলোচনা সভা                    রাঙামাটিতে ৭৩টি বৌদ্ধ বিহারসহ চিকিৎসা সহায়তার অনুদান প্রদান                    খাগড়াছড়িতে তিন পরিবহন শ্রমিককে সাড়ে সাত লক্ষ টাকা মৃত্যু সাহায্য প্রদান                    জুরাছড়িতে নিরবিচ্ছন্নভাবে বিদ্যুৎ চালু না রাখলে বিল পরিশোধ থেকে বিরত ও বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাও হুমকি                    রাঙামাটিতে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কার্যক্রম বাস্তবায়ন জোরদার বিষযক সেমিনার                    রাঙামাটিতে যত্রতত্র নৌ-যান রাখার দায়ে ভ্রম্যমান আদালতের জরিমানা                    বিলাইছড়িতে জনগোষ্ঠীর জলবায়ু বিপদাপন্নতা নিরূপন বিষয়ক প্রশিক্ষণের উদ্বোধন                    জুরাছড়িতে ছাত্রলীগ কমিটি গঠন                    রাঙামাটিতে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮ জন                    রাজস্থলীতে গাইন্দ্যা ইউপির বাজেট ঘোষনা                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে মহালছড়িতে সংবাদ সম্মেলন                    রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু দেড় ফুট পানির নিচে                    কাপ্তাই হ্রদে পানির উচ্চতা বৃদ্ধিতে প্রতি সেকেন্ডে ২৭ হাজার কিউসেক পানি ছাড়া হচ্ছে                    
 

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কাপ্তাই প্রশান্তি পার্ক সেজেছে নতুন সাজে

কাপ্তাই প্রতিনিধি : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 14 Feb 2019   Thursday

অপরুপ সৌর্ন্দয্যের লীলাভুমি  কাপ্তাই। কাপ্তাইয়ের প্রতিটি স্থানেই রয়েছে নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য। সবুজ পাহাড়, লেক, কর্ণফুলী নদীসহ আকা-বাঁকা পাহাড়ি পথ যে কোন মানুষের মনকে আকর্ষণ করে সহজেই। বাড়তি  আকর্ষণ ও ভ্রমণ পিপাসুদের বিনোদনের প্রয়াসে কাপ্তাইয়ের বালুরচর এলাকায় কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের গা-ঘেঁষে নব রুপে নির্মিত হয়েছে আকর্ষণীয় পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র ‘প্রশান্তি পার্ক’। পাহাড়, সবুজ বৃক্ষ, কর্ণফুলী নদীসহ বেশ কয়েকটি আকর্ষণীয় স্পট নিয়ে ভ্রমণ পিপাসুদের হাতছানি দিয়ে ডাকছে পর্যটন কেন্দ্রটি।

 

কাপ্তাই ন্যাশনাল পার্কে অবস্থিত এই বিনোদন কেন্দ্র ইতোমধ্যে অন্যতম ভ্রমণ কেন্দ্র হিসেবে সবার কাছে পরিচিতি লাভ করেছে। কাপ্তাই-চট্টগ্রাম মহাসড়কের একেবারে পাশে অবস্থিত হওয়ায় সড়কপথে যে কোনো সময় অতি সহজে প্রশান্তি পিকনিক স্পটে আসা যায়। আবার কর্ণফুলী নদীর তীর ঘেঁষে অবস্থিত হওয়ায় নৌপথেও প্রশান্তি পিকনিক স্পটে আসার সুযোগ রয়েছে।

 

অসংখ্য গাছগাছালির সমাহার রয়েছে এই প্রশান্তি পিকনিক স্পটে। গাছের মগডালে লম্বা লেজওয়ালা কালোমুখি হনুমান প্রায় সময় দেখা যায়। এ গাছ থেকে ও গাছে বানরের ছুটোছুটি ও লাফালাফি দেখা যাবে এখানে। এছাড়াও হরেক রকম পরিযায়ী পাখির কলকাকলি তো আছেই।প্রশান্তি স্পটে অনেকগুলো আকর্ষণীয় সিমেন্টের তৈরি গোলঘর রয়েছে। এসব গোলঘরে সিমেন্টের তৈরি বসার স্থায়ী ব্যবস্থাও আছে। প্রশান্তি পিকনিক স্পট সংলগ্ন কর্ণফুলী নদীতে নৌ-ভ্রমণের ব্যবস্থা থাকায় অনেক পর্যটক এখানে এসে নৌ- বিহারে বেরিয়ে পড়েন। আবার কর্ণফুলী নদীর মৃদু হাওয়ায় দুলতে দুলতে করতে পারেন "কায়াকিং"। রয়েছে কায়াকিং করার জন্য সুব্যবস্থা। প্রশান্তি পিকনিক স্পটের কোল ঘেঁষে বয়ে যাওয়া কর্ণফুলী নদী পর্যটকদের সবসময় আকৃষ্ট করে। প্রশান্তি পিকনিক স্পটের অদূরেই রয়েছে ঐতিহাসিক সীতাপাহাড়।কিংবদন্তি অনুযায়ী এই পাহাড়েই সীতাকে বনবাসে দেওয়া হয়েছিল। বনবাসে থেকে সীতা কর্ণফুলী নদীর যে ঘাটে এসে গোসল করতেন সেই ঘাটটি এখন সবার কাছে "সীতার ঘাট" নামে পরিচিত।

 

প্রশান্তি পিকনিক স্পটে বিনোদনে এসে সীতার ঘাটে পা ফেলতে কার না মন চায়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করার জন্য রয়েছে কাঠের তৈরি মনোমুগ্ধকর মঞ্চ। পিকনিকে আসা লোকজন নেচে- গেয়ে হৈহুল্লোড় করে এই মঞ্চ মাতিয়ে রাখেন। এখানে একসঙ্গে পাঁচ হাজার লোক সমাগমের ব্যবস্থা রয়েছে। নারী-পুরুষের জন্য পৃথক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন টয়লেটে সার্বক্ষণিক পানি সরবরাহ রয়েছে। রয়েছে সৌন্দর্যমন্ডিত একটি জামে মসজিদ। আকর্ষণীয় এই বিনোদন কেন্দ্রের নাম প্রশান্তি। সত্যিকার অর্থেই এখানে আসলে প্রশান্তিতে মন ভরে যায়। প্রশান্তি পিকনিক স্পটের প্রবেশ মুখে রয়েছে শনের তৈরি গোলঘর। প্রশান্তির চতুর্দিকে রয়েছে বাঁশের চটির তৈরি হালকা দেয়াল। রয়েছে প্রশান্তি কেন্টিন, সহজ লভ্য দামে লাঞ্চ কিংবা যেকোন খাবার পরিবেশন করা হয় এই ক্যান্টিন হতে।

 

প্রশান্তি পিকনিক স্পটের পরিচালক মোঃ নাছির উদ্দিন জানান, ব্যবসায়িক উদ্দ্যেশের চেয়ে পর্যটকদের বিনোদন দেওয়ার প্রত্যাশা নিয়েই আমরা এটি পরিচালনা করছি। এখানে যারা ভ্রমণে আসবেন তারা যদি কাপ্তাইয়ের দর্শনীয় স্থান ঘুরে দেখতে চান, রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু, সুবলং ঝর্ণা, পেডা টিং টিং, দুপপুর ঝর্ণাসহ যেকোনো স্থানে বেড়াতে যেতে চান তাহলে প্রশান্তি পিকনিক স্পটের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় যানবাহন ও গাইডের ব্যবস্থা করে দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে।

 

জানা গেছে, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, ফেনী, নোয়াখালী, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি এমনকি কক্সবাজার থেকেও অনেকে এখানে পিকনিক করতে আসেন। দলবল নিয়ে নয়, জোড়ায় জোড়ায় বা একা এসেও এখানে নির্মল আনন্দ পাওয়া যাবে। তবে পিকনিকে আসতে হলে আগাম বুকিং দিতে হবে।

 

যেভাবে আসবেনঃ চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট বাসটার্মিনাল থেকে যাত্রীবাহী বাসে চড়ে অনায়াসে কাপ্তাইয়ের প্রশান্তি পিকনিক স্পটে আসা যাবে। ঢাকা থেকে সরাসরি কাপ্তাই আসতে বিভিন্ন পরিবহন রয়েছে। এসব পরিবহন প্রতিদিন ঢাকা টু কাপ্তাই যাতায়াত করে। প্রশান্তি পিকনিক স্পটে চট্রগ্রামের আগ্রাবাদ হতে বেড়াতে আসা  দম্পতি হিরু বড়ুয়া ও শিলভীয়ার সাথে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। তারা জানান, প্রকৃতির মনোরম পরিবেশে তারা মুগ্ধ হয়েছি এখানে এসে।

 

 

একটি বেসরকারি পলিটেকনিকের টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারীংয়ে পড়ুয়া ঘুরতে আসা ছাত্র  ফায়াজ বিন নজরুল  জানান, এই পিকনিক স্পটটির প্রতিটি কর্নার মনোমুগ্ধকর রুপে সাজানো হয়েছে। যা দেখে তাদের মতো অন্যেরাও মুগ্ধ না হয়ে পারবে না। তার ছোট বোন নাফিসা বিনতে নজরুল স্নেহা বিভিন্ন ধরনের পাখি দেখে ও পাখিদের কলকাকলি শুনেই আত্মহারা হয়ে পড়ে।স্নেহা বলে, আমি এখানে আবারও আসব,জায়গাটি আমার খুবই ভাল লেগেছে।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

আর্কাইভ