• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
খাগড়াছড়িতে শিশুতোষ দ্বি-ভাষিক বই বিষয়ক স্থানীয় পর্যায়ে অধিপরামর্শ সভা                    রাঙামাটিতে ব্লাষ্টের উদ্যোগে এনজিও প্রতিনিধিদের সাথে নেটওয়ার্কিং সভা                    রাঙামাটি আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ঊষাতন তালুকদার কাপ্তাই থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু                    লংগদুতে আওয়ামীলীগ প্রার্থী দীপংকর তালুকদারের প্রচারনা                    বাঘাইছড়িতে বিএনপি প্রার্থী মনিস্বপন দেওয়ানের গনসংযোগ ও জনসভা                    কাপ্তাইয়ে দীপংকর তালুকদারের সমর্থনে প্রচার কার্যক্রম শুরু                    উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকার কোন বিকল্প নেই-কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা                    ব্লাস্ট রাঙামাটি ইউনিটের উপকারভোগীদের সাথে এক পুনঃপর্যালোচনা সভার আয়োজন                    রাঙামাটিতে জেলা পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল                    পাহাড়ে চাকুরী হবে মেধার মূল্যায়নের মাধ্যমে-মনিস্বপন দেওয়ান                    পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতি বজায় ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহবান দীপংকর তালুকদারের                    বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী জুঁই চাকমার ১৮ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা                    জনবিছিন্ন প্রার্থীদের ভোটারদের প্রতি বর্জন করারআহ্বান দীপংকর তালুকদারের                    খাগড়াছড়িতে যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রনে এডভোকেসী সভা                    খাগড়াছড়িতে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ                    খাগড়াছড়িতে মূলধারার তাবলীগের সংবাদ সম্মেলন,তিন দফা দাবী                    এএফ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের ৯১ লক্ষ টাকায় মোনঘর শিশু সদনে ছাত্রী নিবাসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন                    মহালছড়ির মিলনপুর বন বিহারে ধর্মীয় ও শিক্ষা সহায়ক বই বিতরণ সেনাবাহিনীর                    বাঘাইছড়ি থেকে দীপংকর তালুকদারের নৌকা প্রতীকের আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা শুরু                    নির্বাচনে জয়ী হয়ে ক্ষমতায় আসলে পাহাড়ে চলমান রক্তক্ষয়ী সংঘাত বন্ধে জোরালো পদক্ষেপ নেবে                    রাঙামাটি আসনে প্রতিদ্বন্ধি ৬ প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ,সিংহ প্রতীক পেলেন উষাতন তালুকদার                    
 

কাপ্তাইয়ে সাংগ্রাই উৎসব পালন

নজরুল ইসলাম লাভলু,কাপ্তাই : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 15 Apr 2017   Saturday

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শনিবার রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে পালিত হয়েছে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী সাংগ্রাই বা জলকেলি উৎসব। পুরাতন বছরের সবরকম দুঃখ, কষ্ট, গ্লানি ও জরাজীর্ণ ধুয়ে-মুছে ফেলতে প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও সাংগ্রাই উৎসবের আয়োজন করা হয়।

 

চিৎমরম বৌদ্ধ বিহার চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙামাটি আসনের সাংসদ ঊষাতন তালুকদা। সাংগ্রাই উৎসব উদযাপন কমিটির আহবায়ক খাইস্যা অং মারমার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মংনুছিং মারমা,বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক দীপেন দেওয়ান, শিক্ষাবিদ মংসানু চৌধুরী, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী, , সাংগ্রাই উদ্যাপন কমিটির উপদেষ্টা অংছাই মারমা। এসময় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ দিলদার হোসেন, এএসপি (সার্কেল) আসলাম ইকবাল, আবাসিক প্রকৌশলী আসফাকুর রহমান মুজিব প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন ।


প্রথম পর্বের অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি ফিতা কেটে সাংগ্রাইয়ের মূল আকর্ষণ পানি খেলা বা জলকেলি উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন। এরপর শুরু হয় ঐতিহ্যবাহী পানি খেলা। পানি খেলা মূলত অবিবাহিত তরুন-তরুনীরা একে অপরকে পানি ছিটিয়ে ভিজিয়ে দেয়। এতে বিগত বছরের সকল পাপ ও জরাজীর্ণ ধুয়ে-মুছে যায় বলে তাদের বিশ্বাস। এ অনুষ্ঠানে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য উৎসব কমিটি একটি নির্ধারিত স্থানে পানি খেলার ব্যবস্থা করে। কাপ্তাইয়ের চিৎমরম বৌদ্ধ বিহার মাঠ চত্বরে এই উৎসব চলে।


একদিকে তরুণী অপর দিকে তরুনরা মুখোমুখি দাঁড়ায়। পানি ছিঁটানোর জন্য ছোট ছোট ডিঙ্গি নৌকায় পানি ভর্তি করে রাখে। এরপর বাঁশি বাজার সাথে সাথে চলে পরষ্পর পরষ্পরকে পানি ছিঁটানো। অনেক সময় পর্যন্ত এ খেলা চলার পর এক দলের খেলা শেষ হলে আরেক দলের খেলা শুরু হয়। জনশ্র“তি রয়েছে, জলকেলি উৎসবের মাধ্যমে মারমা যুবক-যুবতীদের একে অন্যের সহচর্যে আসার সুযোগ হয়। এসময় তারা তাদের প্রিয় মানুষটিকে বেছে নেওয়ার কাজটিও সফলভাবে করে নেয়। সাংগ্রাই উৎসবের সবচেয়ে আকর্ষনীয় পানি খেলা দেখার জন্য হাজার হাজার নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর উৎসবস্থলে সমবেত হয়।


এছাড়া পুরো আধিবাসী এলাকাতে চলে পানি ছিঁটানো উৎসব। পনি খেলার উৎসব দেখার জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বিপুল সংখ্যক দেশী-বিদেশী পর্যটক কাপ্তাইয়ের চিৎমরমে ভিড় জমায়। শুধু যে মারমা সম্প্রদায় এ উৎসব পালন করছে, তা নয়। এর সাথে পার্বত্য জেলার বিভিন্ন আধিবাসী জনগোষ্ঠী ও বাঙ্গালীরা এই উৎসবে যোগ দেয়। ফলে এটি আর আধিবাসীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না। এই উৎসব পরিনত হয় পাহাড়ী-বাঙ্গালীর মিলনমেলারও।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

এই বিভাগের সর্বশেষ
আর্কাইভ