সাজেকের তুইছুই মৌজায় হামে আক্রান্ত হয়ে ৫ শিশুর মৃত্যু, আক্রান্ত ১০৭ জন

Published: 20 Mar 2020   Friday   

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের দুর্গম তুইছুই মৌজার অরুন পাড়ায় গেল ২২ দিনের ব্যবধানে হামে আক্রান্ত হয়ে ৫শিশুর মৃত্যু ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া ওই এলাকার তিনটি গ্রামে ১০৭ জন শিশু ও বয়স্ক হামে আক্রান্ত রয়েছে। রাঙামাটি সিভিল সার্জন সত্যত্য স্বীকার করে জানিয়েছেন আক্রান্ত স্থানে মেডিকেল টিম কাজ করছে। তবে হামে যাতে আর মৃত্যু না ঘটে সেজন্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। 

 

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার দূর্গম সাজেক ইউনিয়নের দুর্গম ১৭০ নং তুইছুই মৌজার অরুন পাড়া গ্রামে গত ২৫ ফেব্রুয়ারী থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারী পর্ষন্ত হামে আক্রান্ত হয়ে দুই শিশুর মৃত্যু হয়। এর পর কিছু দিন সুস্থ থাকার পর গেল ১৫, ১৬ ও ১৭ মার্চ আরো ৩ শিশুর মৃত্যু হয়। মৃত শিশুরা হল সাগরিকা ত্রিপুরা (১১), বিজন ত্রিপুরা(০২),কহেন ত্রিপুরা (০৪), কলোই ত্রিপুরা (০২) রেজিনা ত্রিপুরা (৮)। অপরদিকে সাজেক মৌজার কমলাপুর, অরুন পাড়া,লংথিয়ান পাড়ায় হামে আক্রান্ত রয়েছেন ১০৭ জন। আক্রান্তদের মধ্যে শিশু ছাড়াও বয়স্ক লোকজন রয়েছেন। রাঙামাটি স্বাস্থ্য বিভাগের একটি জরুরী মেডিকেল টিম ও বিজিবির একটি মেডিকেল টিম আক্রান্ত এলাকায় চিকিৎসা সেবা প্রদান কওে যাচ্ছে।


সাজেক ইউপি চেয়ারম্যান নেলসন চাকমা নয়ন জানান, এলাকাগুলো দূর্গম অঞ্চল হওয়ার কারণে আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা দিতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। ইতোমধ্যে বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও বিজিবির ২ টি মেডিকেল টীম ঘটনাস্থলে পৌছে চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করেছে। তবে সেনাবাহিনী হেলিকপ্টারের সহযোগীতায় আক্রান্তদের উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা না করলে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।


উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবিব জিতু বলেন, ঘটনাস্থলে মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারের সহায়তা নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। আশা করি এ সংকট কেটে যাবে।


বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ ইফতেকার আহম্মেদ বলেন,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে মেডিকেল টিম পাঠানো হয়েছে। টিমগুলো সেখানে আক্রান্ত লোকজনদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে।


রাঙামাটি সিভিল সার্জন ডাঃ বিপাশ খীসা জানান, ২৫ ফেব্রুয়ারী থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারী পর্ষন্ত হামে আক্রান্ত হয়ে দুই শিশুর মৃত্যু হয়। এর পর কিছু দিন সুস্থ থাকার পর গেল ১৫, ১৬ ও ১৭ মার্চ আরো ৩ শিশুর মৃত্যু হয়। এতে হামে আক্রান্ত রয়েছে ৯৬ জন। জরুরী চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য মেডিকিল টিম সেখানে গিয়ে কাজ করছে। এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত