জুরাছড়িতে বঙ্গবন্ধু জম্ম শত বর্ষে পেল ২৪ পরিবার দুর্যোগসহনীয় ঘর

Published: 16 Mar 2020   Monday   

জুরাছড়ি ইউনিয়নের সামিরা গ্রামের দরিদ্র ও ভূমিহীন জ্যোতি রায় চাকমা(৬৫)। ছোট্ট ৮/১০ শতক ঘরে ভিটা ছাড়া আর কিছুই নেই তার। সে গেল বছর অক্টোবর মাসে অগ্নিকান্ডে ঘর সব আসবাবপত্র পুড়ে সর্বশান্ত হয়ে যায়।

 

পাঁচ মাস খেয়ে না খেয়ে কখনো স্কুলের বারান্দায় আবার কখনো কমিউনিটি ক্লিনিকে কখনো বাজারে রাত কাটে জ্যোতি রায় চাকমা পরিবারের।

 

মঙ্গলবার জুরাছড়ি উপজেলায় বঙ্গবন্ধু জম্মশতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার দুর্যোগ সহনীয় ঘর পেয়ে খুশিতে আত্মহারা জ্যোতি রায় চাকমা পরিবারের। শুধু জ্যোতি রায় চাকমা পরিবার নয় বনযোগীছড়া ইউনিয়নের কাংড়াছড়ির দেবব্রত চাকমা, ধামাইপাড়ার সূচনা চাকমাসহ ২৪ পরিবার।

 

২৪ পরিবারের মধ্যে অধিকাংশ বয়জেষ্ঠ্য ও দরিদ্র পরিবার। আয়-উপার্জন কমে যাওয়াই অনেকেই বর্ষাই ভিজে কিংবা বাসস্থান ভেঙ্গে পড়ার আশংকা ছিল তাদের।

 

বঙ্গবন্ধু জম্মশতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার সকালে বনযোগীড়া ইউনিয়নে কাংড়াছড়ি, ধামাইপাড়া, আনন্দপাড়ায় দুর্যোগসহনীয় ঘর উদ্বোধন ও সুবিধাভোগীদের হাতে চাবি হস্তান্তর করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সুরেশ কুমার চাকমা। এ সময় বনযোগীছড়া ইউপি চেয়ারম্যান সন্তোষ বিকাশ চাকমা, স্থানীয় সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহফুজুর রহমান জানান, গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টিআর) ও কাজের বিনীময়ে টাকা (কাবিটা) কর্মসূচীর বিশেষ বরাদ্দের অর্থ দিয়ে জুরাছড়ি ইউনিয়নে ১০টি বনযোগীছড়া ইউনিয়নে ১০টি মৈদং ইউনিয়নে ৪টি গৃহহীন মানুষের জন্য দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মান করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া উপকারভোগীদের নিরাপত্তা ও দৈনন্দিন বিদ্যুৎ সুবিধা দিতে এসব ঘরে বিনা মূল্যে সোলার হোম সিস্টেম স্থাপন করে দেওয়া হবে।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত