নানিয়ারচর ইউএনও এর বিরুদ্ধে ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ চার ইউপি চেয়ারম্যানের

Published: 22 Aug 2019   Thursday   

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার(ইউএনও) বিরুদ্ধে ভিজিএফ কর্মসূচির বিপরীতে সরকারের দেয়া বরাদ্দের চাল বিতরণ নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন  চার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা।  তাদের অভিযোগ  ইউএনও মাসউদ পারভেজ মজুমদার ভিজিএফ কর্মসূচির চাল বন্টন ও বিতরণে ক্ষমতার অপব্যবহার, বৈষম্যমূলক বিভাজন, ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষমতা ও অধিকার খর্ব করেছেন। তারা ইউএনও এর এ ধরনের কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদসহ বৈষম্যমূলক কার্যকলাপ অবসানের দাবি জানিয়েছেন।

 

সংবাদ মাধ্যমে দেয়া যৌথভাবে স্বাক্ষরিত বিবৃতির মাধ্যমে উপজেলার সাবেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান সুপম চাকমা, নানিয়ারচর সদর ইউপি চেয়ারম্যান জ্যোতিলাল চাকমা, বুড়িঘাট ইউপি চেয়ারম্যান প্রমোদ খীসা ও ঘিলাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান অমল কান্তি চাকমা এসব অভিযোগ করেন।

 

বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে, বন্যাসহ বিভিন্ন দুর্যোগ এবং দুঃস্থ ও গরিব পরবিারের মধ্যে বিতরণের জন্য ভিজিএফ কর্মসূচির অধীন নানিয়ারচর উপজেলার ১২২৫ পরিবারের অনুকূলে ১৬ দশমিক ৮৭৫ টন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে। কিন্তু ওইসব বরাদ্দের চাল ইউএনও মাসউদ পারভেজ মজুমদার উপজেলার চার ইউনিয়ন পরিষদের মতামত উপেক্ষা করে ক্ষমতার অপব্যবহারসহ সম্পূর্ণ মনগড়াভাবে বিতরণ করেছেন। দুঃখজনক হলেও সত্য যে, ইউএনও কেবল মুসলিম অধ্যুষিত এলাকা প্রাধান্য দিয়ে বৈষম্যমূলকভাবে সাবেক্ষ্যং ইউনিয়নে ৫০ পরিবার, নানিয়ারচর ইউনিয়নে ২৪০ পরিবার, বুড়িঘাট ইউনিয়নে ৭৬৫ পরিবার এবং ঘিলাছড়ি ইউনিয়নে ৭০ পরিবারকে বিতরণ করেছেন। অথচ এর আগে প্রত্যেক ইউনিয়নে জনসংখ্যার অনুপাতে বন্টন করে ভিজিএফ চাল বিতরণ করা হতো।

 

বিবৃতিতে আরো  অভিযোগ করা হয়, ইউএনও মাসউদ পারভেজ মজুমদার বরাদ্দের চাল প্রত্যেক ইউনিয়নে ওয়ার্ড ভিত্তিক বিভাজন করে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড সদস্যের নামে ছাড়পত্র  দেন। এতে মুসলিম সম্প্রদায়ভূক্ত প্রত্যেক ওয়ার্ডে ১৫০ থেকে ২০০ পরিবার, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ও অন্য সম্প্রদায় অধ্যুষিত প্রত্যেক ওয়ার্ডে মাত্র পাঁচ পরিবারকে ভিজিএফ চাল বিতরণ করা হয়েছে। যা এটি সম্পূর্ণ বৈষম্যমূলক ও সাম্প্রদায়িক পক্ষপাতদুষ্ট কার্যকলাপ। তিনি ওয়ার্ড ভিত্তিক বিভাজন ও ওয়ার্ড সদস্যের নামে ভিজিএফ চালের ছাড়পত্র দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষমতা ও অধিকার খর্ব করেছেন।

 

বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধর্ম যার যার উৎসব সবার উক্তির কথা উল্লেখ করে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা উপেক্ষা করেছেন নানিয়ারচর ইউএনও মাসউদ পারভেজ মজুমদার। এতে  ইউএনও তার সংকীর্ণ মানসিকতা ও বৈষম্যমূলক কার্যকলাপের পরিচয় দিয়েছেন।

 

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে নানিয়ারচর ইউএনও মাসউদ পারভেজ মজুমদার বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানদের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও অমূলক। ঈদুল আজহা উপলক্ষে দরিদ্র মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় একটু বেশী ভিজিএফ চাল বিতরণ করা হয়েছে। আর সেগুলো দেয়া হয়েছে ওয়ার্ড ভিত্তিক।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত