জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে রাঙামাটিতে মোহাম্মদ হোসেন নামের এক বয়োবৃদ্ধের সংবাদ সন্মেলন

Published: 19 Jun 2019   Wednesday   

পার্বত্য নাগরিক পরিষদের নেত্রী বেগম নূর জাহান কর্তৃক জায়গা জোরপূর্বক দখল করে প্রাণ নাশের হুমকির প্রতিবাদে ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে বুধবার রাঙামাটিতে সংবাদ সন্মেলন করেছেন মোহাম্মদ হোসেন ৭৬ বছরের এক বয়োবৃদ্ধ।

 

সংবাদ সন্মোলনে মোহাম্মদ হোসেন অভিযোগ করেন বেগম নূর জাহান রাজনৈতিক প্রভাব খাতিয়ে তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি, তার উপর প্রতিনিয়ত মানুষিক চাপ প্রয়োগ, বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। এ অবস্থায় তিনি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।


তিনি আরো দাবী করেন, বেগম নূর জাহান তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়ায় রাঙামাটি কতোয়ালী থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগ দায়ের পর বেগম নূর জাহান অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন। তাই তিনি হুমকি ও চাপ থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য এই সংবাদ সন্মেলন করতে বাধ্য হয়েছেন।


শহরের কাঠালতলীস্থ নিজ বাস ভবনে সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ৭৬ বৎসর বয়স্ক মোহাম্মদ হোসেন তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, শহরের কাঠালতলিস্থ বাজার ফান্ড বানিজ্যিক প্লট নং ১৬২(এ) ৪শ বর্গফুট এবং মিস মামলা নং ৩২/৭৯-৮০ মুলে ১৬২(এ) বর্ধিতাংশে ১৪৮৭ বর্গফুট জমিসহ সর্বমোট ১৮৮৭ বর্গফুট জমি আইন অনুযায়ী বন্দোবস্তি পেয়ে বহুতল ভবন নির্মাণ করে ভোগ দখল করছেন। তার নামে ১৮৮৭ বর্গফুট জমির দক্ষিনাংশে ৪ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট একটি গল্লি পথ রয়েছে। যা তিনি রেকর্ডীয় জায়গার পেছনের অংশে চলাচালের জন্য ব্যবহার করে থাকেন। তবে গল্লিটি ব্যবহারের নিশ্চিত করার লক্ষে ও যাতে কেউই দখল করতে না পারে তার জন‌্য তিনি বাজার ফান্ড প্রশাসনের কাছ থেকে ৪ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট গল্লিটি বন্দোবস্তি নেন। এতে বাজার ফান্ড প্রশাসন মিস কেইস নং ৪৩/০৭-০৮ এর সুপারিশ করলে গল্লিটি খতিয়ে তার নামে তৌজিভূক্ত করা হয়। তবে ২০১১ সালের দিকে বেগম নূর জাহান বাজার ফান্ড বানিজ্যিক প্লট নং ১৬২(বি) এর ২৪০ বর্গফুট ও বর্ধিতাংশে ১২০ ফুট ও বর্ধিতাংশের ৫৪০ বর্গফুট ও ১২০ ফুট জমিসহ মোট ১০২০ বর্গফুট জমির উপর বহুতল ভবনের কাজ করার উদ্যোগ করে। এতে তার( মোহাম্মদ হোসেন) এর নামীয় গল্লিটি অবৈধ ও বৈ আইননীভাবে দখলের অপচেষ্টা চালালে দেওয়ানী আদালতে বেগম নূর জাহানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এতে সিভিল স্যূট মামলা নং ১২৫/১৩ সিভিল মোদ্দমার ৪নং আদেশে সুষ্ঠ বিচারের রাঙামাটি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়। এতে গেল ১৫/০৯/১৩ইং তদন্ত প্রতিবেদন নুর জাহান তার রেকর্ডের অতিরিক্ত ৮৬৪ বর্গফুট সম্প্রসারণ করেছেন এবং ৪ ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট গল্লিটি উপরে সানসেড ছাদ সম্প্রসারণের কারণে সিভিল স্যুট মামলা নং ১২৫/১৩ এর মামলা করা হয়। তদন্ত প্রতিবেদনসহ আদালত কর্তৃক যে সব মামলা ও নির্দেশ ছিল সবই তার(মোহাম্মদ হোসেন) পক্ষে ছিল।


সংবাদ সন্মেলনে তিনি আরো বলেন, নূর জাহান বেগম তাকে হয়রানী করার উদ্দেশ্য রাঙামাটি জজ আদালতে বাজার ফান্ড প্লট নং ১৬২(বি) বর্ধিতাংশ ৬৬০ বর্গফুট এর আন্দরে বিরোধীয় বাজার ফান্ড প্লট নং ১৬২(এ) ৪ফুট প্রস্থ গলি জলাশয় ও ফুটপাত তফসিলে উল্লেখ করে ঘোষনা ও নিষেধাজ্ঞার মামলা দায়ের করেন। যা বর্তমানে রাঙামাটির যুগ্ন জজ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।


মোহাম্মদ হোসেন সংবাদ সন্মেলনে আরো দাবী করে বলেন, গেল ৫ মে নূর জাহান সংবাদ সন্মেলন করেছেন তা আদালত অবমাননা। কারণ এই মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে বেগম নূর জাহান যে বক্তব্যে প্রদান করেছেন তা সম্পূর্ন মিথ্যা বানোয়াট, জাল-জালিয়াতিপূর্ন ও তাকে হয়রানী ও মান-সন্মান ক্ষুন্ন করার অপপ্রয়াস বটে।


তিনি সংবাদ সন্মেলনে আরো বলেন,বেগম নূর জাহান বেগম সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে দাবী করেছেন তিনি যে মামলা করেছেন মিথ্যা। তবে জেলা যুগ্ন জজ আদালতে একটি মামলা সত্য মামলা হিসেবে বিচারাধীন রয়েছে। পক্ষান্তরে বেগম নূর জাহান বেগমের দায়েরকৃত দুটি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়া ৪ ফুট গল্লির জায়গাটি বেগম নূর জাহানের রেকর্ডভুক্ত হওয়ায় মোহাম্মদ হোসেনের ১৬২(এ) প্লট নামে যে জায়গাটি তার দাবী করেছেন সে জায়গাটি বেগম নূর জাহানের নামে বন্দোবস্তি হওয়াা মোহাম্মদ হোসেনের নামে মামলা করে চট্টগ্রামে নিয়ে যাওয়ায় মামলা ফাইলটি গোপণ রেখে বন্দোবস্তি দেয়া, মিথ্যা প্রতিবেদন দেয়া, ৪শ বর্গফুট এর মুলে ১৮৮৭ বর্গফুট জায়গা দখল করে প্রশাসনের বিনা অনুমতিতে ভবন নির্মাণ করারসহ ইত্যাদি বক্তব্যে দিয়েছেন তা মিথ্যা ও বানোয়াট।


সংবাদ সন্মেলনে এ সময় মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে আতাউল মোস্তফা উপস্থিত ছিলেন।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত