ভারতের দাদুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো বরকলের যুবতি রুপালি চাকমা

Published: 19 Apr 2019   Friday   

ভারতের মিজোরাম প্রদেশের বড় পনছড়ি থানার আওতাধীন হুরোলোবা ছড়া গ্রামে দাদুর বাড়িতে সামাজিক উৎসব বিজু উৎসবে বেড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো রুপালি চাকমা(২০)।


রাঙামাটির বরকল উপজেলাধীন ৩নং আইমাছড়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পেরাছড়া গ্রামের বাসিন্দা গুরি মরত্তো চাকমার ডাকনাম(তিবিরেবো) কন্যা রুপালি চাকমা।


পারিবারিক সুত্রে জানা যায়- পার্বত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ীদের সামাজিক উৎসব বিজুর দুদিন আগে রুপালি চাকমা ভারতের মিজোরাম রাজ্যের বড়পনছড়ি থানার আওতাধীন হুরোলোবাছড়া গ্রামে দাদু মদন মুনি চাকমার বাড়িতে বিজু উৎসব পালনের জন্য বেড়াতে গিয়েছিল। গেল ১২ এপ্রিল সকালে হুরোলোবাছড়া বৌদ্ধ বিহারের পাশে ঝোপ ঝারে একটি গাছে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় রুপালি চাকমার লাশ পাওয়া যায়।


মৃত রুপালি চাকমার দাদু মদন মুনি চাকমার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, উৎসবের প্রথম দিন ফুল বিজুর এক দিন আগে রাতের খাওয়া দাওয়ার পর যার যার রুমে পরিবারের সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। সকালে ঘুম থেকে জেগে দেখি নাতি রুপালি চাকমা বাড়িতে নেই। মনে হয়েছিল সেই সবার আগে ঘুম থেকে উঠে পানি আনতে ছড়াতে গেছে। কিন্তু অনেকক্ষন অপেক্ষার পরেও যখন রুপালির দেখা নেই। তখন তাকে খোজাখুজির এক পর্যায়ে বৌদ্ধ বিহারের পাশের জঙ্গলে একটি গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশটি পাওয়া যায়।


এদিকে, রুপালির লাশ পাওয়ার পর পুরো এলাকায় এক হ্নদয় বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়। রুপালীর মৃত্যুতে সীমান্তে এপার-পারের মানুষদের মাঝে ঐতিহ্যবাহী বিজু উৎসবের উপর নীতিবাচক প্রভাব পড়েছে বলে এলাকার মানুষরা জানিয়েছেন।


মৃত রুপালি চাকমার বাবা গুরি মরত্তো চাকমা ও তার স্ত্রী এখন মেয়ের শোকে পাগল প্রায়। পরিবারের পক্ষ থেকে দাবী রুপালি চাকমার ব্যক্তিগত কোন শত্রু নেই। কোন ব্যক্তিগত কিংবা পারবারিক সমস্যাও নেই। কোন দুঃখে সেই আত্ম হত্যা করবে? কেন নিজেকে এভাবে শেষ করবে? সেই নানা প্রশ্ন আজ রুপালি চাকমার আত্মীয় স্বজন ও এলাকার মানুষদের। তবে অনেকের ধারনা রুপালি চাকমাকে কেউ জোর করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে হত্যা করে আত্মহত্যার নাটক সাজিয়েছেন। এ ব্যাপারে তদন্ত করলে আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে বলে মনে করেন মৃত রুপালি চাকমার বাবা গুরি মরত্তো চাকমা।


এ ঘটনার ব্যাপারে জানতে চাইলে বরকল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মফজল আহম্মদ খান বলেন তিনি তার উর্ধ্বতন কতৃর্পক্ষের মাধ্যমে বিষয়টি জেনেছেন এবং তাকে দেখার জন্য বলা হলে তিনি এলাকার লোক মুখে শুনেছেন রুপালি চাকমা নামে এক পাহাড়ি যুবতি নারী ভারতের মিজোরাম রাজ্যের বড়পনছড়ি থানার হুরোলোবা ছড়া নামক গ্রামে দাদুর বাড়িতে বিজু উৎসব পালন করতে গেলে সেখানে তার গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় মৃত্যু হয় হয়েছে। তবে মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় এখনো অভিযোগ করতে আসেনি।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত