সরকারি বনাঞ্চলে আগুন বনজ সম্পদ ও জীববৈচিত্র্য ধ্বংস!

Published: 21 Mar 2019   Thursday   

জুমচাষের নামে বন বিভাগের আওতাধীন বনাঞ্চলে আগুন দেওয়া হয়েছে । এতে জীববৈচিত্র্য, বনজ সম্পদ ধ্বংসসহ  পরিবেশ বিপুল পরিমাণে আর্থিক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে  গেল ১৭ মার্চ পার্বত্য চটগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগাধীন কাপ্তাই রেঞ্জের রাম পাহাড় বন বিটের সীতার পাহাড়ের জামাইছড়ি এলাকায়। 

 

বন বিভাগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটনারদিন চিৎমরম এলাকার কতিপয় চিহ্নিত ব্যাক্তি রাতের আধাঁরে মূল্যবান গাছ উজাড় করে  জুম চাষের নামে ওই এলাকায় আগুন দেয়।এতে এলাকাটি  ন্যাড়া পাহাড়ে পরিনত হয়। ফলে লাখ, লাখ টাকার গাছ ধ্বংস হয়ে যায়।এবিষয়ে রামপাহাড় বন বিট কর্তৃপক্ষের অভিযোগে জানা গেছে, তাদের নিজস্ব বাগানে  কতিপয় ব্যাক্তি  বন আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে  বনাঞ্চলে জুম চাষের নামে আগুন দিয়ে ধ্বংস করছে। 

 

কাপ্তাই রাম পাহাড় বন বিট কর্মকর্তা আবুল হাশেম অভিযোগের সত্যতা স্বীকার  করে বলেন, এরা বনাঞ্চলে আগুন দিয়ে মূল্যবান বনজ সম্পদ ও জীববৈচিত্র ধ্বংস করেছে এবং বন বিভাগের জায়গার উপর " এখানে প্রবেশ নিষেধ" সাইনবোর্ড লাগিয়ে রেখেছে। নাম প্রকাশ না করে তিনি বলেন, তারা সবাই চিহ্নিত।তিনি বলেন, জুম চাষের নামে বনাঞ্চলে আগুন দেওয়ায় প্রায় ১৫ একর বনাঞ্চল আগুনে পুড়ে গেছে। যারা আগুন দিয়েছে এবং বিভিন্নভাবে বনকর্মীদের হুমকি দিচ্ছে তাদের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে লিখিতভাবে অভিযোগ দাখিলসহ চন্দ্রঘোনা থানায় জিডি (চন্দ্রঘেনা থানার জিডি নং- ৫৯৯/১৯) এবং বিভাগীয় দু’টি বন মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

 

অপরদিকে, কাপ্তাই রেঞ্জের কামিলা ছড়ি বিটে আগর চাষীদের কয়েক লাখ টাকার আগর গাছ কে বা কারা শত্রুতাবশত কেটে ফেলেছে কয়েকদিন আগে।এঘটনায়ও থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে বলে কাপ্তাই রেঞ্জ কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত