• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
বিলাইছড়িতে দুই বোনের নির্যাতনের ঘটনায় জাতীয় মানবধিকার কমিশনের তদন্ত কমিটি গঠন                    রাঙামাটি লেকার্স পাবলিক স্কুলের ফুট ব্রীজের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন                    পানছড়িতে পিসিপি ৭তম কলেজ কাউন্সিল সম্পন্ন                    পানছড়িতে টিচার্স ফ্রেন্ডশীপ ব্যাডমিন্টন টুর্ন্টামেন্ট সমাপ্ত                    শিল্পকলা একাডেমির ৪৪ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে রাঙামাটিতে র‌্যালী ও আলোচনা সভা                    চাকমা রাণীর ওপর আঘাত রাজ পরিবার ও জনগণের প্রতি চরম অপমান-প্রসিত বিকাশ খীসা                    চাকমা রাণী য়েন য়েন-এর উপর হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে সংহতি সমাবেশ                    আগামি নির্বাচনের আগে আন্দোলন করে সরকারের পদত্যাগ করাতে হবে-মাহমুদুর রহমান                    কাপ্তাইয়ে সুমিষ্ট মাল্টা চাষে ব্যাপক সাফল্য                    সুনীল কান্তি দাশের নীল জ্যোস্না কাব্য                    বরকলে ৮০টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নেই!                    খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে বিএনপির স্মারকলিপি প্রদান                    অসদাচরণের অভিযোগে নজরুল ইসলামকে বাঙালি ছাত্র পরিষদ থেকে বহিস্কার                    রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত                    খাগড়াছড়িতে জেলা ভলিবল লীগের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন                    কাপ্তাইয়ে সপ্তাহব্যাপী গবাদি পশু পালন প্রশিক্ষণের উদ্বোধন                    কাপ্তাইয়ের মানসম্মত শিক্ষা ও শিক্ষার্থীদের ভালো ফলাফলের উদ্বুদ্ধকরণ সভা                    খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ কর্মীকে গুলি করে হত্যা                    রাঙামাটিতে পিসিপি’র বিরুদ্ধে মামলা দায়ের নিন্দা ও প্রতিবাদ                    খাগড়াছড়িতে বিএনপির গণস্বাক্ষর কর্মসূচি চলছে                    খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাঙামাটিতে গণস্বাক্ষর কমূর্সচি পালন                    
 

কাপ্তাইয়ের সম্প্রীতির এক দৃষ্টান্ত

নজরুল ইসলাম লাভলু, কাপ্তাই(রাঙামাটি) : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 19 Jan 2017   Thursday

কে মুসলিম, কে হিন্দু, আর কে বৌদ্ধ-তা কখনও মুখ্য বিষয় হয়ে ওঠেনি এলাকাটিতে। জন্ম থেকে শুরু হওয়া সম্প্রীতির এ বন্ধন মৃত্যুর পরও যাতে অটুট থাকে এমনটি প্রত্যাশা এখানকার অধিবাসীদের। সম্ভবত এ কারনেই কবর আর শ্মশান গড়ে তোলা হয়েছিল পাশাপাশি। যুগ যুগ ধরে সম্প্রীতির এই উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনা থানাধীন রাইখালীবাসী।


একজন মানুষ যে ধর্মেরই হোক, সমাজের যে অবস্থানে থাকুক না কেন, তাকে মৃত্যুকে আলীঙ্গন করতেই হবে। তিনি উচ্চ পর্যায়ে হোন কিনা, কিংবা দিন মজুর হোক তার মৃত্যুকে অস্বীকার করার ক্ষমতা কারোই নেই। চিরন্তন এ সত্যকে ধারন করেই রাইখালীবাসী পাশাপাশি নির্মাণ করেন কবর ও শ্মশান।

তবে স্বাধীনতার পর পরই পাল্টে যেতে থাকে এ চিত্র। স্বাধীনতার কয়েক বছর পর কবরস্থানের পাশে শ্মশান নির্মাণ করেন হিন্দুরা। সম্প্রীতির এমন সুখ থেকে দুরে থাকতে চাইলেন না বৌদ্ধরাও। তারাও কবর ও শ্মশানের পাশে নির্মাণ করলেন সমাধিস্থল। এর পর থেকে আজ পর্যন্ত পাশাপাশি অবস্থান করছে কবরস্থান ও শ্মশান।


রাইখালীবাসীর মতে, পাশাপাশি এ কবর ও শ্মশান এখানকার সব ধর্মের মাঝে সম্প্রীতির বন্ধনকে আরো দৃঢ় করেছে। একমাত্র রাইখালী ছাড়া দেশের আর কোথাও এমন নজির নেই বলেই তাদের দাবী।

  

স্থানীয় ইউপি সদস্য এনামুল হক ও স্থানীয় যুবক টিটু দে জানান, প্রায় অর্ধশত বছর আগে রাইখালী ইউনিয়নের গোডাউন ঘাট এলাকার কর্ণফুলী নদীর পাশে সর্ব প্রথম মুসলমানরাই কবরস্থান নির্মাণ করেন। তখন ওই এলাকায় কিছু সংখ্যক সনাতন ধর্মাবলম্বীর বসবাস ছিল। তবে সনাতন ধর্মের কেউ মারা গেলে তারা বিচ্ছিন্নভাবে মৃত ব্যক্তির সৎকার করতেন। একইভাবে আলাদা জায়গায় মৃত ব্যক্তির সৎকার করতেন এখানকার বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরাও।

 

রাইখালী ইউপি চেয়ারম্যান সায়ামং মারমা জানান, সম্প্রীতির এই বন্ধন চিরদিন অটুট থাকবে। এই বন্ধন ছিন্ন হবার নয়। তিনি আরো বলেন, রাইখালীবাসীর সম্প্রীতিতে আতংক হয়ে আবির্ভুত হয়েছে কর্ণফুলী নদী। কর্ণফুলীর অব্যাহত ভাঙ্গনে হুমকির মুখে পড়েছে কবরস্থান ও শ্মশান এলাকাটি। ভাঙ্গন রোধে এখনই জরুরী ব্যবস্থা গ্রহন করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

এই বিভাগের সর্বশেষ
আর্কাইভ