• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
রাঙামাটিতে সপ্তাহব্যাপী দেশ বরেণ্য চিত্র শিল্পীদের নিয়ে আর্ট ক্যাম্প সমাপ্ত                    এইচএসসিতে রাঙামাটিতে ফলাফল বিপর্যয়,পাশের হার ৪৯.১১ শতাংশ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে রাঙামাটিতে র‌্যালী, মাছের পোনা অবমুক্তকরণ                    খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বে তরুন নেতা জুয়েল চাকমা                    সাপছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুর্নীতিবিরোধী কুইজ প্রতিযোগিতা                    রাঙামাটিতে সমাজকল্যাণ পরিষদের অনুদানের চেক বিতরণ                    খাগড়াছড়ি জেলায় পাশের হার ৩৬.৬১ শতাংশ                    বান্দরবানের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিন-পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী                    কর্ণফুলী নদীতে সেতু নির্মাণে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে সেতু বিভাগের তিন প্রকৌশলীর এলাকা পরিদর্শন                    মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লক্ষ শহীদ স্মরণে আলীকদমে চারা বিতরণ ও বৃক্ষরোপন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে জুরাছড়িতে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    বরকলে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে রাঙামাটিতে ৫৬ হাজার বৃক্ষরোপণ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে পানছড়িতে সংবাদ সম্মেলন                    পার্বত্য চুক্তির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সবাইকে কাজ করতে হবে-বৃষকেতু চাকমা                    পলি ও ড্যাম নির্মাণের কারণে কাপ্তাই হ্রদে রুই জাতীয় মাছের উৎপাদন কমছে                    কাপ্তাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সংবাদ সন্মেলন                    লামা ও আলীদমে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান                    পানছড়িতে বিভিন্ন প্রজাতির সাত হাজার বৃক্ষরোপন                    কাপ্তাইয়ে ফলদ বৃক্ষ রোপন পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী জমে উঠেনি!                    লামায় ৩বসত ঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন্য হাতির পাল                    
 

বরকলের ইউএনও-সহ গুরুত্বপূর্ন আটটি পদ খালীঃদাপ্তরিক কর্মকান্ডে চরম স্থবিরতা

পুলিন চাকমা, বরকল (রাঙামাটি) : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 07 Jan 2017   Saturday

রাঙামাটির বরকল  উপজেলার ১৭টি সরকারী দফতরের মধ্যে  ৮টি দপ্তরে কর্মকর্তা না থাকায় বর্তমানে দাপ্তরিক কর্মকান্ডে চরম স্থবিরতা দেখা দিয়েছে।

 

সরকারী ৮টি দপ্তরে অন্য উপজেলার কর্মকর্তাদের ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দিয়ে চালানো হচ্ছে দাপ্তরিক কর্মকান্ড। এতে একদিকে সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মচারীরা যেমনি দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন তেমনি সরকারী সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন উপজেলার সাধারন মানুষ।

 

একাধিক সূত্রে জানা যায়,দীর্ঘ দিন ধরে বরকল উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, সমাজ সেবা কর্মকর্তা,কৃষি কর্মকর্তা,প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা, উপজেলা প্রকৌশলী,উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা ও উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার পদ খালি রয়েছে। বর্তমানে এসব দফতরে অন্য উপজেলার কর্মকর্তাদের অতিরিক্ত দায়িত্ব দিয়ে চালানো হচ্ছে উপজেলার সরকারী কার্যক্রম। কর্মকর্তা না থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মচারী ও এলাকার সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ।

 

সূত্র মতে,চলতি বছরের সেপ্টেম্বর থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পদটি শুন্য রয়েছে। বর্তমানে জেলার সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার সুমনী আক্তারকে অতিরিক্ত দায়িত্বে রেখে কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। বর্তমানে ওই কর্মকর্তা দুটি উপজেলার দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারী থেকে উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার পদটি শুন্য রয়েছে। সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আলতাব হোসেনকে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তার দায়িত্ব দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

 

গত ২০১০ সালের আগষ্ট মাসে সমাজ সেবা কর্মকর্তা প্রীতিময় চাকমা বদলীর পরে কর্মকর্তার পদটি শুন্য রয়েছে। বর্তমানে জেলা সদর উপজেলার কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ চাকমাকে অতিরিক্ত দায়িত্বে রাখা হয়েছে। ওই কর্মকর্তা জেলা সদর,বরকল উপজেলা ছাড়া ও বিলাইছড়ি উপজেলার দায়িত্বে রয়েছেন।

 

গত ২০১৫ সালের মে মাসে কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ বাছিরুল আলম বদলী হওয়ার পর কর্মকর্তার পদটি শুন্য রয়েছে। সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মুক্তা চাকমাকে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দিয়ে  দপ্তরের কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

 

গত ২০১১ সালের এপ্রিল মাসে প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ হুমায়ন কবির বদলির পর কর্মকর্তার পদটি শুন্য রয়েছে। বর্তমানে ভেটেরিনারী সার্জন পলি রানী ঘোষ কে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব দিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

 

গত ২০১৫ সালের   মাসে উপজেলা প্রকৌশলী খন্ডকার মাহমুদুল আশরাফ বদলির পরে উপজেলা প্রকৌশলীর পদটি  শুন্য হয়। বর্তমানে সহকারী প্রকৌশলী এসএম মাহাবুবুর রহমানকে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দিয়ে দাপ্তরিক কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

 

এর পরে বিগত ২০০২ সালের জুলাই থেকে উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তার পদটি শুন্য রয়েছে। বর্তমানে জেলার উপ-পরিচালক মানবেন্দ্র নারায়ন দেওয়ান অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন। ওই কর্মকর্তা বরকল উপজেলা ছাড়া ও জেলার সদর উপজেলা,কাপ্তাই, জুরাইছড়ি,বিলাইছড়ি,কাউখালী রাজস্থলী ও নানিয়ারচর উপজেলা সহ ৯টি উপজেলায় এক কর্মকর্তা অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন।

 

এছাড়া উপজেলায় কোন মৎস্য অফিস না থাকায় জুরাইছড়ি উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা দীপন চাকমাকে উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্ব দিয়ে দপ্তরের কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

 

ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নিবার্হী অফিসার সুমনী আক্তার জানান, বরকল উপজেলায় যোগাযোগের দূর্গমতা ও সুযোগ সুবিধা না থাকার কারণে কোন কর্মকর্তা আসতে চান না। কোন কারণে আসলেও নানান তদবীর করে বদলী হয়ে চলে যান। কর্মকর্তাদের সুযোগ-সুবিধা থাকলে দফতর গুলোর শুন্যতা পূরণ করা সম্ভব বলে তিনি মন্তব্য করেন।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

আর্কাইভ